মিরপুরের চলন্তিকা বস্তিতে আগুন নিয়ন্ত্রণে

0
15

মিরপুর ৭ নম্বর ঝিলপাড়ের চলন্তিকা বস্তিতে ভয়াবহ আগুন ফায়ার সাভির্সের তিন ঘণ্টার চেষ্টায় নিয়ন্ত্রণে এসেছে। তবে পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আনতে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিস। প্রথমে ১২টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করলেও পর্যায়ক্রমে তা বাড়ানো হয়েছে। সর্বশেষ ফায়ার সার্ভিসের ২৪টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে অংশ নেয়।

ফায়ার সার্ভিসের পরিচালক (অপারেশন) লে. কর্নেল জিল্লুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, এ ঘটনায় তিনজন আহত হয়েছেন। তদন্ত করে আগুনের সূত্রপাত সম্পর্কে জানা যাবে।

এর আগে সার্ভিসের ডিউটি অফিসার এরশাদ যুগান্তরকে বলেন, আগুনের খবর পেয়ে আমাদের ১৯টি ইউনিট ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে। আগুনের ভয়াবহতা বাড়ায় আরও ৫টি ইউনিট খবর দেয়া হয়েছে। তবে তাৎক্ষণিকভাবে আগুনের সূত্রপাত এবং হতাহতের বিষয়ে বিস্তারিত জানাতে পারেননি।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ঝিলপাড়ের বস্তির চারদিকে বহুতল ভবন থাকার কারণে ফায়ার সার্ভিসের গাড়িগুলো ঘটনাস্থলে পৌঁছাতে পারছে না। এ ছাড়া বস্তির পাশে গাড়ি চলাচলের জন্য কোনো রাস্তাও নেই। বাতাসের কারণে আগুন বহুতল ভবনের দিকে ছড়িয়ে পড়ছে। এ কারণে ভবনের বাসিন্দারা দিগ্বিদিক ছোটাছুটি করছেন।

ঝিলপাড় বস্তির বাসিন্দা রহিত যুগান্তরকে বলেন, এখানে প্রায় সাত হাজার ঘর রয়েছে। ভেতরে অনেক লোক আটকা পড়ে আছে। আমিও ভেতরে ছিলাম। অনেক কষ্টে বেরিয়ে এসেছি।

আগুন নিয়ন্ত্রণে ফায়ার সার্ভিসের পাশাপাশি এলাকাবাসীও কাজ করছেন। অগ্নিকাণ্ডের আশপাশের এলাকায় বিদ্যুৎ, গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

এদিকে আগুনে ক্ষতিগ্রস্থদের সাহায্য ও আহতদের চিকিৎসা সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে বহন করা হবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন মেয়র আতিকুল ইসলাম।যুগান্তর