আদাবরে পরিচ্ছন্ন রাজনৈতিক কর্মী আবদুর রব হাওলাদার

0
174
ধ্রুব নয়ন, স্টাফ রিপোর্টারঃ আদাবরে পরিচ্ছন্ন রাজনৈতিক কর্মী আবদুর রব হাওলাদার ইতিমধ্য ব্যাপক সুনাম অর্জন করেছেন বলে লোকমুখে শোনা যাচ্ছে। মাদক, চাঁদাবাজি, ভূমি দখল, তদবির বাণিজ্যসহ সকল অন্যায় কাজকে তিনি এড়িয়ে চলেন বলে এলাকায় সাধারণ মানুষ আবদুর রব হাওলাদারকে মনে প্রাণে বিশ্বাস এবং শ্রদ্ধা করেন। তিনি বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বুকে লালন করে মানুষের বিপদে-আপদে নিঃস্বার্থ ভাবে এগিয়ে আসেন বলে এলাকাবাসি জানান। গরীব-অসহায মানুষের পাশে দাঁড়িযে, অভাবগ্রস্থদের সাধ্যমতো সাহায্য করে তিনি সাধারণ মানুষের মন জয় করেছেন বলেও জানা যায়। আদাবর থানা কমিউনিটি পুলিশিং কমিটির সভাপতি থাকা কালে তিনি চার হাজারেরও বেশি বিচারকার্য স¤পন্ন করেন। তার ন্যায় বিচারিক রায়ে এলাকার সাধারণ মানুষের অন্তরে তিনি পৌঁঁছে যান। পরবর্তিতে উক্ত কমিটির মধ্যে লোভের সৃষ্টি হলে তিনি তা বিলুপ্ত করার আবেদন জানান। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন জানান, আবদুর রব হাওলাদার একজন সহজ-সরল মনের মানুষ। এই এলাকায় তিনি কারো ক্ষতি করেননি। পারলে উপকার করেছেন। অনেকে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ভাবে আমাদের সমস্যা করেছে কিন্তু আবদুর রব হাওলাদার সত্যিই একজন মাটির মানুষ! তিনি সব সময় মানুষের কল্যাণে কাজ করে গেছেন। আপনি থানায় খবর নিয়ে দেখতে পারেন- তার বিরুদ্ধে মামলা তো দূরের কথা একটা সাধারণ ডায়েরীও খুঁজে পাবেন না। তিনি এলাকায় কোন প্রকার কোন ঝামেলার সাথে জড়িত নাই। তিনি ব্যবসা করে যাচ্ছেন নিজের মতো পাশাপাশি বঙ্গবন্ধুর আদর্শ নিয়ে সৎ ভাবে স্বেচ্ছাসেবকলীগের রাজনীতি করে যাচ্ছেন। বর্তমানে আবদুর রব হাওলাদারের মতো একজন সৎ রাজনৈতিক কর্মী খুঁজে পাওয়া সত্যিই কষ্টের। আদাবর থানা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক জিএস এম এ মান্নান টাইমস অব বংলাদেশ টুয়েন্টি ফোর ডট কম-কে বলেন, আবদুর রব হাওলাদার একজন সৎ, মহান এবং ত্যাগী কর্মী। আমি তাকে ব্যাক্তিগত ভাবেও চিনি। রব ভাইয়ের মতো মানুষ পাওয়া এতো সহজ নয়। আমরা দূর্দিনে একসাথে রাজপথে ছিলাম। আমি একটা বিষয় লক্ষ্য করেছি রব ভাইয়ের ভিতরে বিন্দুমাত্র লোভের কোন স্থান নেই। এটা আমার কাছে খুব ভালো লাগে। তবে এই নেতা অভিযোগ করে বলেন, আবদুর রব হাওলাদারের মতো প্রকৃত কর্মীদের বাদ দিয়ে জামাত-শিবির থেকে আসা ক্যাডারদের নিয়ে পকেট কমিটির অপচেষ্টা চলছে। এই হাইব্রীড ভাইরাস থেকে তিনি সবাইকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানান। আবদুর রব হাওলারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি টাইমস অব বংলাদেশ টুয়েন্টি ফোর ডট কম-কে জানান, আমি কোন নেতা নই! আমি হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী, বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শের একজন কামলা। জননেত্রী শেখ হাসিনার ভিশন এবং এ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক এমপি যে দিক নির্দেশনা দিবেন তা আমি আমার জীবনের বিনিময়ে পালন করে যাবো। আমি কোন পদ-পজিশন চাই না বা পদের জন্য আমার বিন্দুমাত্র কোন লোভ নেই! আমি শুধু বঙ্গবন্ধুর আদর্শ নিয়ে মানুয়ের কল্যাণে কাজ করে যেতে চাই। তবে তিনি অত্যান্ত দুঃখ প্রকাশ করে অভিযোগ করেন, নানক ভাইয়ের নের্তৃত্বে আমরা যারা রাজপথে রক্ত-ঘাম দিয়েছি তারা আজ মূল্যহীন আর যাদেরকে কোন দিন রাজপথে দেখা যায়নি তারাই আজ মাথা হয়ে সব জায়গা চাঁদাবাজী, চুরি-ছিনতাই, সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছে। নাম উল্লেখ না করে তিনি বলেন, আদাবরের কতিপয় দূর্নীতিপরায়ণ নেতার কারণে জামাত-শিবিরের কিছু ক্যাডারকে হাইব্রীড নেতা হিসেবে কমিটি দাঁড় করাতে চাচ্ছে। যা দলের জন্য মারাত্মক হুমকি! আমি জননেত্রী শেখ হাসিনাকে অনুরোধ করবো- জেনে, শুনে ভালোভাবে খোঁজ-খবর নিয়ে এই হাইব্রীড নেতামুক্ত কমিটি আদাবরবাসীকে উপহার দেওয়া হোক।